নগরবাসীর নিরাপত্তা নিশ্চিতে এসএমপি’র গণবিজ্ঞপ্তি

সিলেট মহানগর এলাকায় বসবাসরত সকল নাগরিকদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার স্বার্থে গণবিজ্ঞপ্তি জারি করেছে সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশ(এসএমপি)। এতে ব্যক্তি ও সম্পদের নিরাপত্তায় কিছু নির্দেশনা মেনে চলার আহ্বান জানানো হয়েছে।

রোববার (৫ মে) সন্ধ্যায় সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার (মিডিয়া এন্ড কমিউনিটি সার্ভিস) মো. জেদান আল মুসা স্বাক্ষরিত এবং গণমাধ্যমে প্রেরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে সতর্কতাগুলো অবলম্বন করার আহ্বান জানান।

নিরাপত্তামূলক সতর্কীকরণ বিজ্ঞপ্তি বলা হয়েছে, প্রিয় নগরবাসী আপনার জীবন ও সম্পদ অত্যন্ত মূল্যবান। আপনাদের নিজস্ব নিরাপত্তার জন্য নিম্নলিখিত সতর্কতাগুলো অবলম্বন করুন।

ভাড়াটিয়া তথ্য সংক্রান্ত:
১.অপরিচিত ভাড়াটিয়ার ক্ষেত্রে নাম-ঠিকানা ও সঠিক পরিচয় যাচাই করুন। এক্ষেত্রে ভাড়াটিয়ার জাতীয় পরিচয়পত্রের অনুলিপি ও বাসায় বসবাসকারীদের নাম ও ছবি সংরক্ষণ করুন।
২.ভাড়াটিয়া আপনার পূর্ব পরিচিত হলে তিনি কোন অপরাধমূলক কাজে সম্পৃক্ত কিনা তা নিশ্চিত হোন।
৩.ভাড়াটিয়ার গতিবিধি সন্দেহজনক হলে তাৎক্ষণিকভাবে নিকটস্থ থানায় জানান।
৪.ভাড়া বাসায়, মেসে বা কলোনিতে সন্দেহজনক লোকজন বা অপরিচিত লোকজন ঘন ঘন আসা যাওয়া করলে খোঁজখবর নিন এবং নিকটস্থ থানায় জানান।
৫.আপনার ভাড়া দেয়া বাসা বাড়ি, কলোনি ও মেস এর ভাড়াটিয়াদের সম্পর্কে প্রাপ্ত তথ্যাদি নিকটস্থ থানায় অবহিত করুন।
৬.যে সকল ভাড়াটিয়ার আসবাবপত্র বা মালামাল নাই তাদের ক্ষেত্রে অধিক সতর্কতা অবলম্বন করুন।

বাসাবাড়ির ও অফিস নিরাপত্তা সংক্রান্ত:
১.আপনার বাসা বা অফিসে অন্তর্মুখী ও বহির্মুখী ক্লোজ সার্কিট ক্যামেরা ব্যবহার করুন।
২.অফিস, বাসা বা ফ্ল্যাটের মেইন গেটে নিরাপত্তা এলার্মযুক্ত অটোলক ব্যবহার করুন।
৩.সম্ভব হলে বাসা বা অফিসে গার্ড বা চৌকিদার নিয়োগ করুন।
৪.বাস বা অফিসে পুলিশ/ফায়ার সার্ভিসসহ অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ নাম্বারসমূহ লিখে রাখুন।
৫.বাসা বাড়ি ত্যাগের পূর্বে রুমের দরজা তালাবন্ধ করুন ও জানালা সঠিকভাবে বন্ধ করুন।
৬.বাসাবাড়ির নিচতলায় বসবাসকারীগন ভেন্টিলেশনের জানালা বন্ধ নিশ্চিত করুন। বাসার জানালা/ দরজার পাশে কোন গাছ থাকলে শাখা- প্রশাখা কেটে ফেলুন যাতে অপরাধীরা শাখা-প্রশাখা ব্যবহার করে বাসায় প্রবেশ করতে না পারে।
৭.রাতে আপনার বাসার চারপাশ আলোকিত করে রাখুন। বাসার গাড়ীর গ্যারেজ সুরক্ষিত করুন।
৮.সিসি টিভিসহ অন্যান্য নিরাপত্তা ব্যবস্থা সক্রিয় থাকার বিষয়টি নিয়মিত নিশ্চিত করুন।
৯.মূল্যবান সামগ্রী ও দলিল নিরাপদ হেফাজতে রাখুন এবং তালাবন্ধ করুন। প্রয়োজনে ব্যাংক লকারের সহায়তা নিতে পারেন।
১০.বাসাবাড়ি ত্যাগের পূর্বে পাশের প্রতিবেশীদের আপনার বাসার প্রতি লক্ষ রাখতে অনুরোধ করুন এবং ফোনে তাদের সাথে যোগাযোগ রাখুন।
১১.আপনার অনুমতি না নিয়ে কেউ যেন বাসায় প্রবেশ করতে না পারে এ বিষয়ে বাড়ির নিরাপত্তা কর্মীকে সতর্ক করুন। নিরাপত্তা কর্মী না থাকলে আগন্তুক এর পরিচয় নিশ্চিত না হয়ে দরজা খুলবেন না।
১২.ভাড়াটিয়াগন পূর্বেই বাসার মালিককে ঈদ উপলক্ষে বাসা ত্যাগের বিষয়টি অবহিত করুন।
১৩.বাসাবাড়ি ত্যাগের পূর্বে আপনার রুমের লাইট, ফ্যানসহ অন্যান্য ইলেকট্রিক লাইনের সুইচ বন্ধ করেছেন কিনা তা নিশ্চিত হোন এবং পানির ট্যাব ও গ্যাসের চুলা বন্ধ করুন।
১৪.মহল্লা ও বাড়ির সামনে সন্দেহজনক কাউকে ঘোরাফেরা করতে দেখলে বা অপ্রীতিকর কোন ঘটনা ঘটলে বা ঘটার সম্ভাবনা থাকলে স্থানীয় পুলিশকে অবহিত করুন।

ট্যুরিস্ট স্পট এ নিরাপত্তা সংক্রান্ত:
১.কোন দর্শনীয় স্থানে ভ্রমণের ক্ষেত্রে প্রয়োজনে পুলিশের সহায়তা গ্রহণ করুন।
২.যথাসম্ভব সন্ধ্যার আগে দিনের আলোয় ঘোরাফেরা শেষ করুন।
৩.কোন স্থানে ভ্রমণ করলে ভ্রমণের স্থান সম্পর্কে নিজ পরিবারকে অবহিত করুন।
৪.ভ্রমণ বা চলাচলের সময় মানিব্যাগ/পার্স ব্যাগ এবং মূল্যবান সামগ্রী সতর্কতার সাথে নিরাপদে বহন করুন।

ট্রাফিক সংক্রান্ত সতর্কতা:
১.যত্রতত্র গাড়ি ও মোটরসাইকেল পার্কিং করবেন না।
২.ফিটনেসবিহীন গাড়ি চালাবেন না।
৩.ড্রাইভিং লাইসেন্স প্রাপ্তিতে বি.আর.টিএ/ এসএমপি এর সহায়তা গ্রহণ করুন।
৪.গাড়ি চালানোর সময় প্রয়োজনীয় কাগজপত্র সাথে রাখুন।

বিবিধ:
১.চেকপোস্টে পুলিশকে সহায়তা করুন।
২.রোহিঙ্গা সংক্রান্ত কোন তথ্য থাকলে সঙ্গে সঙ্গে সংশ্লিষ্ট থানা বা পুলিশ কন্ট্রোল রুমকে অবহিত করুন।
৩.শেয়ার সিএনজি পরিহার করুন। শেয়ার সিএনজি ব্যবহার করলে আপনার টাকা এবং মূল্যবান সামগ্রীর ব্যাপারে সতর্ক থাকুন।
৪.বেশি টাকা বহনের ক্ষেত্রে পুলিশের সহায়তা নিন।
৫.আপনার আকস্মিক বিপদের মুহূর্তে ৯৯৯ নম্বরে কল করুন।
৬.পুলিশকে তথ্য দিন এবং প্রয়োজনে সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের সহায়তা নিন।

এসএমপি কন্ট্রোল রুম (০৮২১৭১৬৯৬৮,০১৭৩৩৭৪৫৭৫,০১৯৯৫১০০১০০) সার্বক্ষণিক (২৪/৭) আপনার সেবায় নিয়োজিত।

সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশ শান্তি শৃঙ্খলা রক্ষা, অপরাধ দমন এবং শান্তিপূর্ণভাবে বসবাসের জন্য নগরবাসীর সহযোগিতা কামনা করে।

শেয়ার করুন