শিশুর বুদ্ধি বিকাশে পাঁচ পরামর্শ

পৃথিবীতে সন্তানকে নিয়ে যারা সব চেয়ে বেশি চিন্তা করেন, তারা হলেন বাবা-মা। বাবা-মার এ চিন্তা লেগে থাকে কীভাবে তার শিশুর মেধা ও বিকাশ বৃদ্ধি হবে।শিশুর বুদ্ধির বিকাশে এক থেকে পাঁচ বছর পর্যন্ত বিশেষ যত্ন নেয়া প্রয়োজন। শতভাগ বিলিয়নের বেশি নিউরন নিয়ে একটি মানবশিশুর জন্ম হয়। শিশুর বুদ্ধির বিকাশ যেহেতু মস্তিষ্কের নিউরনের ওপর নির্ভরশীল এবং এই নিউরনের বৃদ্ধি শুধু গর্ভকালীন ও প্রথম পাঁচ বছরই সম্পন্ন হয়।গবেষণায় দেখা যায় একজন মানুষের ৯০ ভাগ মস্তিষ্ক গঠন হয়ে যায় পাঁচ বছর বয়সের মধ্যেই । তাই শিশু বয়স থেকেই মস্তিষ্ক গঠনে ও বৃদ্ধিতে যত্ন নেওয়া প্রয়োজন। কিছু বিষয় রয়েছে, যেগুলো শিশুর মস্তিষ্ক ভালোভাবে বৃদ্ধিতে সাহায্য করে।

গর্ভাবস্থায় ধূমপান থেকে বিরত থাকা

শিশুর জীবন স্বাস্থ্যকর করতে হলে শুরু থেকে সচেতন হতে হবে। কারো ধূমপানের অভ্যাস থাকলে গর্ভাবস্থায় এই অভ্যাস একেবারেই বাদ দিতে হবে। কারণ, সিগারেটের মধ্যে থাকা ক্ষতিকর উপাদান গর্ভে থাকা শিশুর মস্তিষ্ককে ক্ষতিগ্রস্ত করে।

শিশুকে বুকের দুধ খাওয়ান

নবজাতকের জন্য বুকের দুধ খুব গুরুত্বপূর্ণ একটি খাবার। রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ানোর পাশাপাশি এটি শিশুর মস্তিষ্ক বৃদ্ধিতে সাহায্য করে। গবেষণায় জানা যায়, যারা বুকের দুধ পান করে না তাদের তুলনায়, যারা বুকের দুধ ভালোভাবে পান করে তাদের বুদ্ধিমত্তা বেশি থাকে ।

সংগীতের সঙ্গে পরিচয়

শিশুকে একেবারে ছোটবেলা থেকেই সংগীতের সঙ্গে পরিচয় করান। সংগীত কগনেটিভ হেলথ বা জ্ঞানীয় স্বাস্থ্য উন্নতিতে সাহায্য করে। সবচেয়ে ভালো হয় শিশুকে সংগীত শেখাতে পারলে। ভালো সংগীত শুনলে মস্তিষ্ক থেকে ডোপামিন নামের রাসায়নিক বের হয়। এটি কোনো কিছু শেখার ক্ষেত্রে প্রেরণা জোগায়।

স্বাস্থ্যকর খাবার খাওয়ান

শিশুর কিছু নিয়মিত পুষ্টিগুণ সম্পন্ন খাবার দৈহিক ও মানসিক বিকাশে সাহায্য করে থাকে। তবে এটাও ঠিক, সব খাবারে একই পুষ্টিগুণ থাকে না, এমন কিছু খাবার আছে যার মধ্যে অনেক বেশি পুষ্টিগুণ বিদ্যমান। যা শিশুর মস্তিষ্ক সক্রিয় ও সতেজ রাখে। মস্তিষ্ক সক্রিয় এবং সতেজ থাকলে শিশুর মেধা ও বুদ্ধি বিকাশ ত্বরান্বিত হয়।

তাই ছোটবেলা থেকেই স্বাস্থ্যকর খাবার খাওয়ার অভ্যাস শিশুর মধ্যে গড়ে তুলুন। শরীর ও মস্তিষ্কের গঠনের জন্য ভালো পুষ্টি খুব জরুরি। ফাস্টফুড এড়িয়ে আপেল, পালংশাক, ব্রকলি, ওটমিল, কালো চকলেট, তরমুজ, দুধ, বাদাম, বীজ জাতীয় খাবার খাদ্যতালিকায় রাখুন।

সৃজনশীল খেলনা

মস্তিষ্কের বৃদ্ধির জন্য শিশুকে সৃজনশীল খেলনা দিয়ে খেলতে না। এমন ধরনের খেলনা দিন, যেন এটি তার সৃজনশীলতাকে বাড়াতে সাহায্য করে।

শেয়ার করুন